বাংলাদেশ মৎস্য গবেষণা ইনস্টিটিউট গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকার
মেনু নির্বাচন করুন
Text size A A A
Color C C C C
সর্ব-শেষ হাল-নাগাদ: ২৯ এপ্রিল ২০১৫

বিএফআরআই সম্পর্কিত প্রশ্ন ও উত্তর

প্রশ্নঃ বাংলাদেশ মৎস্য গবেষণা ইনস্টিটিউট (বিএফআরআই) এর লক্ষ্য ও উদ্দেশ্য কি কি?

উত্তরঃ  বাংলাদেশ মৎস্য গবেষণা ইনস্টিটিউট (বিএফআরআই) এর লক্ষ্য ও উদ্দেশ্য সমুহ নিম্নরূপঃ

  1. সকল জীবিত জলজ সম্পদের সার্বিক উন্নয়ন ও সর্বোত্তম ব্যবহার নিশ্চিত করার লক্ষ্যে মৌলিক ও প্রায়োগিক গবেষণা পরিচালনা এবং সমন্বয় সাধন।
  2. গ্রামীণ দরিদ্র জনগোষ্ঠীর আর্থ-সামাজিক অবস্থা বিবেচনা পূর্বক স্বল্প ব্যায় এমন পরিবেশ বান্ধব উন্নত মৎস্যচাষ এবং ব্যবস্থাপনা বিষয়ে প্রযুক্তি উদ্ভাবন।
  3. প্রক্রিয়াজাতকরণ, মান নিয়ন্ত্রণ ও বিপণন ব্যবস্থার মাধ্যমে বহুবিধ মৎস্যজাত দ্রব্যাদির উন্নয়ন এবং জনপ্রিয়করণের উদ্দেশ্যে গবেষণা পরিচালনা।
  4. সীমিত ভূমির সর্বোত্তম ব্যবহারের লক্ষ্যে সমন্বিত খামার ব্যবস্থাপনা সম্পর্কিত গবেষণা পরিচালনা।
  5. চিংড়িসহ অন্যান্য বাণিজ্যিক গুরুত্বপূর্ণ জলজ সম্পদের উন্নয়নের লক্ষে প্রযুক্তি উদ্ভাবন।
  6. প্রশিক্ষণের মাধ্যমে কারিগরী জ্ঞানসম্পন্ন দক্ষ জনবল তৈরী এবং প্রশিক্ষণ এবং প্রদর্শনীর মাধ্যমে ইনস্টিটিউট উদ্ভাবিত প্রযুক্তি সমূহের সম্প্রসারণ
  7. দেশের মৎস্যসম্পদ বিষয়ক গবেষণার পরিকল্পনা, ব্যবস্থাপনা এবং বাস্তবায়ন সম্পর্কিত সার্বিক বিষয়ে  সরকারকে পরামর্শ প্রদান।

 

প্রশ্নঃ ইনস্টিটিটের সদর দপ্তরের অবস্থান কোথায়?

উত্তরঃ ইনস্টিটিটের সদর দপ্তরের অবস্থান হচ্ছে ময়মনসিংহ জেলার দিঘারকান্দা এলাকায় (বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাস সংলগ্ন)

 

প্রশ্নঃ  ইনস্টিটিউটটের কেন্দ্র ও উপকেন্দ্র সমূহের নাম ও অবস্থান কোথায়?

উত্তরঃ কেন্দ্র ৫টি, যথাঃ

১. স্বাদুপানি কেন্দ্র, ময়মনসিংহ

২. নদী কেন্দ্র, চাঁদপুর

৩. লোনাপানি কেন্দ্র, পাইকগাছা, খুলনা

৪. সামুদ্রিক মৎস্য ও প্রযুক্তি কেন্দ্র, কক্সবাজার

৪. চিংড়ি গবেষণা কেন্দ্র, বাগেরহাট।

উপকেন্দ্র ৫টি, যথাঃ

১. স্বাদুপানি উপকেন্দ্র, যশোর

২. স্বাদুপানি উপকেন্দ্র, সৈয়দপুর

৩. স্বাদুপানি উপকেন্দ্র, শান্তাহার

৪. নদী উপকেন্দ্র, রাঙামাটি

৫. নদী উপকেন্দ্র, খেপুপাড়া, পটুয়াখালী।

 

প্রশ্নঃ  অদ্যাবধি ইনস্টিটিউট কর্তৃক উদ্ভাবিত প্রযুক্তি কতটি?

উত্তরঃ অদ্যাবধি ইনস্টিটিউট কর্তৃক সর্বমোট ৪৯টি প্রযুক্তি উদ্ভাবিত হয়েছে তন্মধ্যে

প্রজনন, পোনা উৎপাদন ও চাষ বিষয়ক প্রযুক্তি ২৭টি

১.    রুই জাতীয় মাছের উন্নত নার্সারী ব্যবস্থাপনা

২.    পুকুরে রুই জাতীয় মাছের মিশ্রচাষ

৩.    বিএফআরআই গিফট তেলাপিয়ার পোনা উৎপাদন ও চাষ

৪.    মৌসুমী পুকুরে রাজপঁটির চাষ

৫.    ধান ক্ষেতে মাছের সমন্বিত চাষ 

৬.    থাই পাঙ্গাশের প্রজনন ও পোনা উৎপাদন

৭.    পুকুরে পাঙ্গাশ মাছের চাষ 

৮.    ঘেরে উন্নত পদ্ধতিতে বাগদা চিংড়ির চাষ

৯.    কৈ মাছের প্রজনন, পোনা উৎপাদন ও চাষ

১০. শিং মাছের পোনা উৎপাদন ও চাষ

১১.  কৃত্রিম প্রজননের জন্য পিটুইটারী  গ্লান্ড সংগ্রহ ও সংরক্ষণ

১২.  অন্ত:প্রজনন সমস্যা  নিরসনে ব্রুড ব্যাংক ব্যবস্থাপনা

১৩.  রুই জাতীয় মাছের উন্নত  জাত উদ্ভাবন                

১৪.  পাবদা ও গুলশা মাছের প্রজনন ও পোনা উৎপাদন

১৫.  মাগুর মাছের পোনা উৎপাদন ও চাষ

১৬.  সুপার তেলাপিয়ার মনোসেক্স পোনা উৎপাদন ও চাষ

১৭.  ওভার উইন্টার্ড পোনা ব্যবহারে রুই জাতীয় মাছ উৎপাদন

১৮.  পেন ও খাচায় মাছ চাষ                                     

১৯.  পাহাড়ী ঘোনায় পেনে মাছ চাষ

২০.  পুকুরে হাঁস ও মাছের সমন্বিত চাষ

২১.  পুকুরে মুরগী ও মাছের সমন্বিত চাষ

২২.  বিপন্ন প্রজাতির মাছের প্রজনন ও পোনা উৎপাদন

২৩.  শংকর জাতের মাগুরের পোনা উৎপাদন ও চাষ

২৪.  নোনা টেংরার প্রজনন ও পোনা উৎপাদন

২৫.  ভেটকির সাথে তেলাপিয়ার চাষ

২৬.  নিয়ন্ত্রিত প্রাকৃতিক পরিবেশে কুচিয়া মাছের পোনা উৎপাদন

২৭.  পারশে মাছের প্রজনন ও পোনা উৎপাদন    

চিংড়ি ও কাঁকড়া বিষয়ক প্রযুক্তি ০৭টি

১.  গৃহাঙ্গন হ্যাচারীতে গলদা চিংড়ির পোনা উৎপাদন 

২.  রুই জাতীয় মাছের সাথে গলদা চিংড়ির মিশ্রচাষ

৩.  বাগদা চিংড়ির সাথে তেলাপিয়া চাষ

৪.  ঘেরে ও খাচায় যুগপত কাঁকড়া ফ্যাটেনিং

৫.  পরিবেশ বান্ধব সমন্বিত কাঁকড়া ফ্যাটেনিং; চিংড়ি ও মাছ চাষের উন্নত কলাকৌশল

৬.  আবদ্ধ পদ্ধদিতে বাগদা চিংড়ির আধা-নিবিড়  চাষ

৭.  ফসল চক্রভিত্তিক বাগদা ও গলদা চিংড়ির চাষ

মৎস্য খাদ্য উৎপাদন বিষয়ক প্রযুক্তি ০৩টি

১.  দেশীয় উপকরণ সহযোগে স্বল্প মূল্যের মৎস্য খাদ্য উৎপাদন

২.  বিএফআরআই মডেল মৎস্য খাদ্যের পিলেট মেশিন

৩. বিএফআরআই ফিশ ড্রায়ার

৪.  বেহুন্দিজালের উন্নয়ন

মুক্তা চাষ বিষয়ক প্রযুক্তি ০১টি

১.  স্বাদুপানির ঝিনুকে মুক্তাচাষ

মৎস্য ব্যবস্থাপনা ও নীতি বিষয়ক  প্রযুক্তি ১০টি

১. ইলিশ সম্পদের সংরক্ষণ ও উন্নয়ন ব্যবস্থাপনা

২. প্লাবনভূমির মৎস্যসম্পদের উন্নয়ন ও ব্যবস্থাপনা

৩. প্রাকৃতিক উৎস হতে বাগদা চিংড়ির পোনা সংগ্রহ ও জীববৈচিত্র সংরক্ষণ

৪. মাছের রোগ সনাক্তকরণ, প্রতিকার ও স্বাস্থ্য ব্যবস্থাপনা

৫. চিংড়ির রোগ সনাক্তকরণ, প্রতিকার ও স্বাস্থ্য ব্যবস্থাপনা

৬. জলজ পরিবেশে ও মাছের উপর কীটনাশকের বিষক্রিয়া 

৭. মাছের কোয়ারেনটাইন নীতিমালা

৮. জাতীয় মৎস্য প্রজনন পরিকল্পনা

৯. ফিস ফিড রেফারন্স ষ্ট্যান্ডার্ড (ইইউ/এফডিএ মান)

১০. হালদা নদীর মৎস্য প্রজনন ক্ষেত্র চিহ্নিতকরণ, সংরক্ষণ ও ব্যবস্থাপনা

 

প্রশ্নঃ বিএফআরআই এর চলমান গবেষণা কার্যক্রম কি কি?

উত্তরঃ বিএফআরআই এর চলমান গবেষণা কার্যক্রম নিম্নরূপঃ

  1. স্বাদুপানির ঝিনুকে মুক্তা উৎপাদন
  2. বিলুপ্তপ্রায় চিতল ও কুচিয়ার কৃত্রিম প্রজনন
  3. ক্রুসিয়ান কার্প মাছের প্রজনন ও চাষ কৌশল
  4. রুই, তেলাপিয়া, কৈ এবং পাঙ্গাস মাছের জাত উন্নয়ন।
  5. পারশে মাছের পোনা উৎপাদন
  6. ইলিশ ও জাটকার নতুন প্রস্তাবিত অভয়াশ্রম চিহ্নিতকরণ
  7. সামুদ্রিক শৈবালের চাষ ও ব্যবহার বিষয়ে গবেষণা।
  8. চিংড়ির রোগ সনাক্তকরণ ও প্রতিকার।
  9. বাগদা চিংড়ির স্বল্পকালীন চাষ ব্যবস্থাপনা।
  10. কাঁকড়ার প্রজনন এবং পোনা উৎপাদন ইত্যাদি।

 

প্রশ্নঃ বিলুপ্তপ্রায়  মাছের সংরক্ষণ ও বংশবৃদ্ধির লক্ষ্যে ইনস্টিটিউট থেকে গৃহীত পদক্ষেপ নেয়া হয়েছে?

উত্তরঃ বিলুপ্তপ্রায়  মাছের সংরক্ষণ ও বংশবৃদ্ধির লক্ষ্যে ইনস্টিটিউট থেকে নিম্নলিখিত পদক্ষেপ নেয়া হয়েছেঃ

  1. স্বাদুপানির প্রায় ২৬০টি মৎস্য প্রজাতির মধ্যে ৫৪টি প্রজাতি বিপন্ন বলে চিহ্নিত।
  2. বিলুপ্তপ্রায় ১২টি মাছ যথা: বাটা, সরপুটি, ভাঙ্গনা, কালিবাউশ, গণিয়া, মহাশোল, পাবদা, গুলশা, শিং, মাগুর, গুজি ও আইড় এর প্রজনন ও চাষ বিষয়ক প্রযুক্তি উদ্ভাবন ।
  3. উদ্ভাবিত প্রযুক্তির উপর প্রশিক্ষণের মাধ্যমে আগ্রহী সরকারী ও বেসরকারী সম্প্রসারণ কর্মকর্তা, মৎস্যচাষী, বেকারযুবক, গ্রামীণ মহিলা এবং উদ্যোক্তাদের মাঝে সম্প্রসারণ করা হয়েছে।
  4. দেশীয় বিলুপ্তপ্রায় মাছের প্রাপ্যতা বৃদ্ধি পেয়েছে।

 

প্রশ্নঃ  ইলিশের উৎপাদন বৃদ্ধিতে ইনস্টিটিউট হতে গৃহীত কার্যক্রম কি কি?

উত্তরঃ ইলিশের উৎপাদন বৃদ্ধিতে ইনস্টিটিউট হতে গৃহীত কার্যক্রম নিম্নরূপঃ

  1. জাটকার প্রাচুর্যতা পর্যবেক্ষণ এবং পানির গুণাগুণ পরীক্ষা নিরীক্ষার ভিত্তিতে জাটকার অনুকূল পরিবেশ নিশ্চিত করণ।
  2. বরিশাল জেলার হিজলা উপজেলার নাছাকাটি পয়েন্ট, হরিনাথপুর পয়েন্ট, ধুলখোলা পয়েন্ট এবং মেহেন্দিগঞ্জ উপজেলার ভাষানচর পয়েন্ট অঞ্চলে মেঘনার শাখা নদী হিজলা উপজেলার ধর্মগঞ্জ ও নয়াভাঙ্গানী নদী এবং মেহেন্দিগঞ্জ উপজেলার লতা নদীর ৬০ কিলোমিটার এলাকায় ইলিশ/ জাটকার বিচরণ ক্ষেত্র চিহ্নিত করে নতুন (৬ষ্ঠ) অভয়াশ্রম ঘোষণার প্রস্তাব পেশ।
  3.  ধারাবাহিক গবেষণার মাধ্যমে বিভিন্ন নদীতে ইলিশের প্রজনন এবং বিচরণ ক্ষেত্র চিহ্নিতকরণ।
  4. ইনস্টিটিউট কর্তৃক সুপারিশের ভিক্তিতে নির্দিষ্ট সময়ে প্রজননক্ষম ইলিশ ধরা নিষিদ্ধকরণ এবং অভয়াশ্রম ব্যবস্থাপনা।
  5. উল্লেখিত কার্যক্রমের ফলে বিগত দশ বছরে ইলিশের উৎপাদন  ১.৫০ লক্ষ মে.টন বৃদ্ধি পেয়েছে।
  6.  ইলিশ সংরক্ষণ ও উৎপাদন বৃদ্ধির লক্ষ্যে বরিশাল জেলায় একটি ইলিশ গবেষণা কেন্দ্র স্থাপনের উদ্যোগ গ্রহণ।

 

প্রশ্নঃ সারা দেশে হ্যাচারীতে উৎপাদিত রুই জাতীয় মাছের বৃদ্ধির হার ক্রমান্বয়ে ব্রুড হ্রাস পাচ্ছে , ইনস্টিটিউট থেকে এটি নিয়ন্ত্রনে কোন পদক্ষেপ গ্রহণ করা হয়েছে কিনা ?

উত্তরঃ  ইনস্টিটিউট থেকে এটি নিয়ন্ত্রনে নিম্নলিখিত পদক্ষেপ গ্রহণ করা হয়েছে যথাঃ

  1. ইনস্টিটিউট প্রাকৃতিক উৎস থেকে রুই জাতীয় মাছের পোনা সংগ্রহ করে ব্রুড ব্যাংক স্থাপন।
  2. প্রজননের মাধ্যমে এই সব উন্নত জাতের মাছ থেকে পোনা উৎপাদন করে সরকারী বেসরকারী বিভিন্ন  হ্যাচারী  এবং আগ্রহী চাষী পর্যায়ে বিতরন।
  3. ইনস্টিটিউটের হ্যাচারীতে প্রজন্মতরে ক্রস ব্রিডিং এবং সিলেক্টিভ ব্রিডিং এর মাধ্যমে উৎপাদিত রেনু পোনা আগ্রহী চাষীদের মাঝে বিতরন।
  4. সার্বিক ভাবে  দেশে হ্যাচারী  উৎপাদিত রুই জাতীয় মাছের ইনব্রিডিং নিয়ন্ত্রন।
  5. সাম্প্রতিক সময়ে জেনেটিক গবেষণার মাধ্যমে ইনস্টিটিউ দেশীয় রুই মাছের উন্নত জেনেটিক জাত উদ্ভাবন করেছে যা মৎস্য অধিদপ্তরের হ্যাচারীসহ দেশের বিভিন্ন অঞ্চলে অসংখ্য ব্যক্তিমালিকানাধীন হ্যাচারী কতিপয় এনজিওর ব্রূড ব্যাংক এবং ব্যাপক ভিত্তিতে চাষী পর্যায়ে সরবরাহ করা হয়েছে।

 

প্রশ্নঃ উপকূলীয় অঞ্চলে পরিবেশ বান্ধব চিংড়ি  উৎপাদনে গৃহীত কার্যক্রম কি কি?

উত্তরঃ উপকূলীয় অঞ্চলে পরিবেশ বান্ধব চিংড়ি  উৎপাদনে গৃহীত কার্যক্রম নিম্নরূপঃ

  1. দক্ষিণাঞ্চলে চিংড়ির উৎপাদন বৃদ্ধি, রোগ নির্ণয় ও প্রতিকার এবং চিংড়িজাত পণ্যের গুণগত মানোনয়নের লক্ষ্যে গবেষণার জন্য ইনস্টিটিউটের লোনাপানি ও চিংড়ি গবেষণা কেন্দ্রে চিংড়ির স্বাস্থ্য ব্যবস্থাপনা, খাদ্য ও পুষ্টিমান, গুণগত মান উন্নয়ন এবং মাটি ও পানির গুণাগুণ বিষয়ক গবেষণা পরিচালনা করা হচ্ছে।

 

প্রশ্নঃ উদ্ভাবিত প্রযুক্তিসমূহ চাষী পর্যাযে সম্প্রসারণের লক্ষে গৃহীত কার্যক্রম কি কি? উত্তরঃ উদ্ভাবিত প্রযুক্তিসমূহ চাষী পর্যাযে সম্প্রসারণের লক্ষে গৃহীত কার্যক্রম নিম্নরূপঃ

  1. ইনস্টিটিউট উদ্ভাবিত প্রযুক্তিসমূহ চাষী পর্যাযে সম্প্রসারণের লক্ষ্যে সম্প্রসারণ কর্মকর্তা, মৎস্য চাষী এবং উদ্যোক্তাদের জন্য নিয়মিত প্রশিক্ষণ প্রদান।
  2. আগ্রহী চাষীগণ সরাসরি সদর দপ্তরে প্রশিক্ষণ শাখায় যোগাযোগ করে তালিকা ভূক্তির মাধ্যমে উন্নত মৎস্যচাষ বিষয়ক প্রশিক্ষণ গ্রহণ করতে পারেন।

 

প্রশ্নঃ চাষী পর্যায়ে সেবা প্রদান কার্যক্রম কি কি?

উত্তরঃ

  1. উন্নত জাতের পোনা বিতরণ
  2. বিষয় ভিক্তিক মৎস্য চাষ প্রশিক্ষণ
  3. মৎস্য চাষ বিষয়ক পরামর্শ প্রদান
  4. আগ্রহী চাষীদের মাটি ও পানি পরীক্ষা

 

প্রশ্নঃ মৎস্য বিজ্ঞান শিক্ষায় সহযোগিতা কি কি?

উত্তরঃ

  1. বিশ্ববিদ্যালয় মৎস্য বিজ্ঞান অনুষদ/বিভাগের ছাত্রছাত্রীদেও চলমান গবেষণা কার্যক্রম প্রদর্শন
  2. আগ্রহী ছাত্রছাত্রীদের গবেষণা কাজে সহযোগীতা প্রদান
  3. বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষকদের সাথে যৌথ গবেষণা পরিচালনা

 

প্রশ্নঃ কর্মশালা/সেমিনার/চাষী সমাবেশ হয় কিনা?

উত্তরঃ

  1. জাতীয় ও স্থানীয় পর্যায়ে উদ্ভাবিত প্রযুক্তির উপর কর্মশালা,সেমিনার ও চাষী সমাবেশের আয়োজন।

Share with :